মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
ভিসির পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল শাবি : বাসভবন ঘেরাও নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে মার্কিন দূত-মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নির্যাতনের জবাবদিহিতায় যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশ্রুতিবদ্ধ কুষ্টিয়ায় নিখোজ যুবকের ভাসমান মরদেহ উদ্ধার কুষ্টিয়ায় ৯ পুলিশ কর্মকর্তার রদবদল সন্ত্রাসবাদকে না বলুন এই স্লোগানে কুষ্টিয়ায় উগ্রবাদ প্রতিরোধে পুলিশের মতবিনিময় সভা অক্সফামের রিপোর্ট : করোনায় শীর্ষ ১০ ধনীর সম্পদ দ্বিগুণ হয়েছে, মরছে গরিব, বাড়ছে বৈষম্য কুষ্টিয়ার মিরপুরে অবাধে ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রি সরকারি চিনিকলে বিক্রির তিনগুণ লোকসান কুষ্টিয়ায় গত চার মাস পর করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু চলতি অধিবেশনেই পাস হচ্ছে নির্বাচন কমিশন আইন

প্রকৃত লিচুর স্বাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বিরামপুরের ক্রেতারা

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি / ২৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৫৬ অপরাহ্ন

বিরামপুর উপজলার হাট-বাজার গুলোতে দেখা মিলেছে লাল টসটসে রঙের লিচুর। লিচুর রাজ্য খ্যাত হিসেবে উত্তরের বৃহত্তর জেলা দিনাজপুর। দিনাজপুরের লিচু মানেই ংস্বাদ ও রসে ভরপুর। যতই দিন যাচ্ছে ততই যেন ব্যস্ত হয়ে উঠেছে বিরামপুরের লিচু চাষীরা,ব্যবসায়ী ও ক্রেতা-বিক্রেতারা। তবে আবহাওয়া অনূকুলে না থাকায় চলতি মৌসুমে লিচুর আশানুরুপ ফলন হয়নি এই উপজেলায়। ফলে লোকসানের সংশয়ে রয়েছে লিচু চাষীরা। আবার অধিকাংশ লিচু চাষীরা অধিক লোকসানের হাত থেকে রক্ষায় অপরিপক্ক লিচুতে বিভিন্ন রাসায়নিক স্প্রে করে সবুজ লিচুকে রঙ্গিন লিচুতে রূপান্তরিত করছে। বাজারে এসব রাসায়নিক যুক্ত অপরিপক্ক লিচু বাজারজাত করা হচ্ছে। ফলে ঐতিহ্যবাহী দিনাজপুরের লিচুর স্বাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ক্রেতারা। লিচু চাষীরা বলছে-গাছে লিচুর ফুল আসার পর থেকে দীর্ঘ সময়ে বৃষ্টির দেখা মেলেনি আকাশে। পাশাপাশি ছিল রোদের প্রচন্ড প্রখর তাপ। ফলে অন্যান্য বছরের তুলনায় আশানুরুপ লিচু ধরেনি গাছে। আবার আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় লিচু পরিপক্ক হবার আগেই ফেটে যাচ্ছে। ফলে ব্যাপক লোকসানের আশংকায় দিন কাটছে তাদের। উপজেলার লিচু বাগান গুলো ঘুরে দেখা যায় যে,অধিকাংশ বাগানে চায়না-থ্রি ও বোম্বাই জাতের লিচুর গাছ রয়েছে। বাগানের বেশ কিছু গাছে লিচুর কোন দেখা মেলেনি চলতি মৌসুমে। যেসব গাছে লিচু ধরেছে, সেটিও তুলনামূলক ভাবে কম। এসব বাগান থেকে প্রাকৃতিক ভাবে লাল হয়ে লিচু বাজার জাত করতে সময় লাগবে আরো এক সপ্তাহ। তবে পরিপক্ক হবার আগেই লিচু ফেটে যাওয়ায় গাছে বিভিন্ন রাসায়নিক স্প্রে করছে চাষীরা। এসব রাসায়নিক প্রয়োগের ফলে এক থেকে দুই দিনের ভিতরেই পূর্ণ পরিপক্ক হবার আগেই লিচু লাল রুপ ধারণ করছে। আর অপরিপক্ক ও রাসায়নিক দ্বারা রঙ্গিন হওয়া লিচু গাছ থেকে সংগ্রহ করে বাজারজাত করছে লিচু চাষীরা। ফলে পরিবর্তন হচ্ছে লিচুর স্বাদ। পাশাপাশি পরিবর্তন হচ্ছে লিচুর আকৃতি ও কালার। এসব লিচু বাজার থেকে কিনে নানা ভাবে প্রতারিত হচ্ছে ক্রেতারা। অধিকাংশ বাগানে বোম্বাই এবং দেশী জাতের লিচু প্রাকৃতিক ভাবেই হালকা লাল রুপ ধারণ করেছে। তবে চায়না-৩ ও মাদ্রাজিসহ অন্যান্য বিদেশী জাতের লিচু পরিপক্ক হতে সময় লাগবে আরো ৫ থেকে ৭ দিন। লিচুর বাজার গুলো ঘুরে দেখা যায় যে, অন্যান্য বছরে লিচুর জমজমাট হাট বসলেও কিন্তু এই বছর লিচুর ফলন কম হওয়ায় জামজমকপূর্ণ কোন হাট-বাজার নেই। লিচু খুচরা ব্যবসায়ীরা রাস্তার দু’পাশে ছোট ছোট দোকান দিয়ে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত লিচু বিক্রয় করছে। এসব দোকানে বোম্বাই জাতের লিচু প্রতি ১শ পিচ লিচু ১৯০ থেকে ২২০ টাকা এবং চায?না থ্রি ৫৫০ থেকে ৬০০ টাকা দরে বিক্রি করছে। অপর দিকে দেশী জাতের প্রতি ১শ পিচ লিচু ১৫০ থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর