শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ার খোকসায় প্রতিপক্ষের হামলায় নারী বৃদ্ধসহ আহত-৪

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৪৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় নারী ও বৃদ্ধসহ চারজন গুরুতর আহত হয়েছে। স্থানীয় ও ভ্ক্তুভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের চখরিপুর গ্রামের হঠাৎপাড়ায় ছাগলে পাট গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে এই হামলার ঘটনা ঘটে। জানা যায়, গত ২২ শে মে (শনিবার) দুপুরে চকরিপুর গ্রামের হঠাৎপাড়ার ইসমাইল (৭০) এর পাটের খেতে ছাগল ঢুকে পাট গাছ খায় প্রতিবেশী হান্নানের (৪৫) ছাগল। প্রতিবেশী হান্নানের ছাগল পাট গাছ খাওয়ায় ছাগল বেধে রাখতে বলায় ইসমাইল হোসেন। আর ছাগলরবেধে রাখতে বলার প্রেক্ষিতে দুজনের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এসময় প্রতিবেশিরা সমঝোতা করে দিলে একপর্যায়ে তারা দুজনই শান্ত হয়ে নিজ নিজ বাড়ি চলে যায়। কিন্তু গত রবিবার (২৩শে মে) সকালে ইমাঈলের নাতি ছেলেকে হান্নানের ছোট ছেলে আলীরাজ (১৫) খেলার ছলে মারপিট করে। এরপর হান্নান, রবেল, জিন্না, তৈয়ব, নাজিম খান, উসমান, আলীরাজসহর অজ্ঞাত আরও ৩/৪ মিলে ইসমাইলের বাড়িতে রড, হাসুয়া, বাটামসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় ইসমাইল ওপর। এসময় বৃদ্ধ ইসমাইলকে মারপিট থেকে বাঁচাতে ইসমাইলের স্ত্রী রোমেছা খাতুন, মেয়ে নাসিমা খাতুন, ছেলে আব্দুর রাজ্জাক ও তার স্ত্রী শিলা খাতুন ছুটে আসলে তাদেরকেও মারপিট করে গুরুতর আহত করে। পরবর্তী সময়ে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে খোকসা ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বর্তমানে গুরুতর আহত অবস্থায় ইসমাইল, তার স্ত্রী রোমেছা খাতুন ও তার মেয়ে নাসিমা খাতুন চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ব্যাপাের আহত ইসমাইল জানান, সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে আমাকে এবং আমার পরিবারের সদস্যদের ওপর হান্নান , হান্নানের ছেলেসহ বেশ কয়েকজন সাথে নিয়ে এসে মারপিট করে আহত করে। আহত অবস্থায় আমি এবং আমার পরিবারের সদস্যদের হাসপাতালে আনার সময় আমার বাড়িতে থাকা তিন বস্তা মশুর, দুই বস্তা কালোজিরা লুট করে নিয়ে যায় হান্নান গংরা। এ বিষয়ে অভিযুক্ত হান্নানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমার ছোট ছেলে আলীরাজ কে মারপিট করার কারণেই আমি এবং আমার দুই ছেলে গিয়ে ইসমাইল দের মারপিট ও করেছি। এ বিষয়ে খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, বিষয়টি শুনেছি তবে এখনো থানায় লিখিত কোনো অভিযোগ যায়নি। অভিযোগ পেলে দোষীদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর