রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন

চুয়াডাঙায় পীরের দরবারে নারীর ঝুলন্ত দেহ, পীরসহ ৩ জন গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৩১ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় এক পীরের দরবারে মুক্তা মালা (৩২) নামে এক নারীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে ওই পীরসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার রাত ১১টার দিকে অভিযান চালিয়ে আলমডাঙ্গা উপজেলার এরশাদপুর গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এর আগে ওই রাতেই ৪ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহত ঐ নারীর বাবা। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- একই গ্রামের ইছাহক আলীর ছেলে নিহত মুক্তা মালার স্বামী জহুরুল ইসলাম (৩৫), জহুরুলের মা জহুরা বেগম (৫০) ও পীর সালাউদ্দীন ওরফে পান্টু হুজুর। মামলা সূত্রে জানা গেছে, মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার বাথানপাড়ার আব্দুর রশিদ অসুস্থ হলে তিনি নিজের বিধবা যুবতী কন্যা মুক্তামালাকে (৩২) নিয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গার এরশাদপুর গ্রামের পান্টু হুজুরের দরবারে যান চিকিৎসা নিতে। ওই সময় পান্টু হুজুরের খাদেম জহুরুল ইসলামের সাথে মুক্তা মালার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে ৭ মাস পূর্বে তারা বিয়ে করেন। বিয়ের পর মুক্তা মালা স্বামীর সাথে পান্টু হুজুরের দরবারেই বসবাস করতেন। হুজুরের খাদেম হিসেবে ওই দরবারে আরও অনেক মেয়ে ও পুরুষ বসবাস করেন। বিয়ের পর থেকেই জহুরুলের মা জহুরা বেগম তার পুত্রবধূ মুক্তা মালাকে ভালোভাবে নেননি। তার উপর নানা অত্যাচার করতেন তিনি। এক পর্যায়ে গতকাল রোববার সকাল ৮টার দিকে মুক্তামালার শ্বাসরোধ করা মৃতদেহ দরবারের পান্টু হুজুরের ঘর থেকে উদ্ধার করা হয়। নারীটি গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ঐ হুজুরের ঘরে জুলন্ত অবস্থায় ছিল। ঘটনাটি পুলিশকে না জানিয়ে মুক্তা মালার মরদেহ দরবারের নিজস্ব ভ্যানযোগে তার বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। বিষয়টি কাউকে না বলতে হুমকিও দেয়া হয়। দুপুরে মেয়ের মরদেহ নিয়ে আলমডাঙ্গা থানায় আসেন বাবা আব্দুর রশিদ। আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবীর জানান, ঘটনার পর মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। রাত ১০টার দিকে নিহত মুক্তা মালার বাবা আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে জহুরুল ইসলাম, তার মা ও পান্টু হুজুরসহ ৪ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে জহুরুল, তার মা জহুরা বেগম ও পান্টু হুজুরকে গ্রেফতার করে। ওসি জানান ইসলাম ধর্মকে বিকৃত করা, মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানাসহ একাধিক অভিযোগে পীর পান্টু হুজুরকে এর আগেও বেশ কয়েকবার গ্রেফতার করে পুলিশ। তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। ওসি আরো জানান নারীদের ফুঁসলিয়ে নিয়ে এসে নিজের আখড়ায় রাখা, যুবতীদের নিয়ে এসে গানের আসর বসানো, রোগ চিকিৎসার নামে প্রতারণা করাসহ নানা অভিযোগেও রয়েছে পান্টু হুজুরের বিরুদ্ধে ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর