বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
কুমারখালী উপজেলা ও পৌর বিএনপির প্রতীকী অনশন পালন কুষ্টিয়ায় পণ্যে পাটজাতদ্রব্য ব্যবহার না করার অপরাধে জরিমানা কিশোরগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ২৫টি পরিবারের ৮৩টি বসতঘর পুড়ে ভস্মীভ’ত কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় বিএনপির প্রতিকী অনশন পালিত কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বিজ্ঞান শিক্ষার প্রসার ঘটিয়ে জনগনকে জনসম্পদে পরিনত করতে হবে : ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ, এমপি ফতুল্লায় গার্মেন্টস শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ পুলিশের লাঠিচার্জ, টিয়ারশেল নিক্ষেপ রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থাকায় তালিকা হচ্ছে না নিয়ন্ত্রণহীন অপরাধীরা সাংবাদিকদের মধ্যে আর কোনো বিভক্তি থাকবে না : রুহুল আমিন গাজী কুষ্টিয়ায় তিন দিনেও খোঁজ মেলেনি অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রের, ফোনে মুক্তিপণ দাবি

কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি কার্যালয়ে দফায় দফায় ছাত্রলীগ যুবলীগের হামলা-ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক : / ৩৫৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৯ পূর্বাহ্ন

পত্রিকা অফিসে হামলা, সাংবাদিক আহত-৩, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর

কুষ্টিয়াতে এন এস রোডে অবস্থিত কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির অফিসে দফায় দফায় হামলা করেছে সরকার দলীয় নেতা-কর্মীরা। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে কে বা কারা ৫ রাস্তার মোড়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভাস্কর্য’র কিছু অংশ ভেঙ্গে ফেলে। আর এর প্রতিবাদে শনিবার বিকেল ৫টার দিকে শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে সরকারদলীয় নেতা-কর্মীরা। মিছিল বের করেই কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির অফিসের ভেতরে ঢুকে চেয়ার, টেবিল, আলমারিসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করে কয়েকশ’ নেতা-কর্মীরা। অফিসে ভাংচুর শেষে ওই মার্কেটের বেশ কিছু দোকানে ভাংচুর করে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এ সময় সকল দোকান বন্ধ রাখার হুঁশিয়ারি দিয়ে যায় তারা।

এই সংবাদ সংগ্রহের সময় দীপ্ত টিভির কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি দেবেশ চন্দ্র সরকার, দীপ্ত ভিভির ক্যামেরাম্যান, একাত্তর ভিটির সহকারী ক্যামেরাম্যান হারুনের ওপর আক্রমণ করে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। বর্তমানে আহত তিন সাংবাদিক হাসপাতালে ভর্তি আছে। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা বেশ আশংকাজনক বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে দিপ্ত ভিভির জেলা প্রতিনিধি দেবেশ চন্দ্র সরকার জানান, আমরা জেলা বিএনপির অফিস ভাংচুরের সময় সংবাদ সংগ্রহ করি ভিডিও ফুটেজসহ। আর এতেই ক্ষিপ্ত হলে আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে এরা। তার কিছু সময় পরই ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কমীরা এসে হামলা করে কুষ্টিয়ার মজমপুরে অবস্থিত জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিনের ভাই সিহাব উদ্দিনের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান এসবি বাস কাউন্টরে। কয়েকশ’ ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কমীরা মূহর্তের মধ্যেই বাস কাউন্টার ও অফিস কক্ষ ভেঙ্গে লন্ডভন্ড করে দেয়। আতঙ্কিত হয়ে পড়ে বাসের যাত্রী ও কাউন্টারে থাকে সাধারণ জনগণ।

এর পরপরই রাত ৮টার সময় আবারো হামলা চালায় জেলা বিএনপির অফিসে। সে সময়ও তারা সেখানকার জিনিষ্টপত্র ভাংচুর করে। ভেঙ্গে ফেলা হয় বিএনপি অফিসের গেট ও সিসি ক্যামেরা। আর সে সময় সারা শহর যেনো এক আতঙ্কিত রূপ নেয়। বিএনপি অফিস ২য় দফায় ভাংচুরের পর পাশেই হামলা চালায় দৈনিক হাওয়া পত্রিকার বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ে। সে সময় ছাত্রলীগ কমীরা প্রায় ২০ মিনিট অবস্থান করে অফিসের সিসি ক্যামেরাসহ অফিস ভাংচর করে এবং গেট বন্ধ করে অফিসে থাকা সাংবাদিকদের পেট্রল ধরিয়ে পুড়িয়ে দিতে লাগে। স্থানীয়রা বলছে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাদ আহমেদ ও কুষ্টিয়া সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের এক নেতার নেতৃত্বে এমন তান্ডব চালিয়েছে কুষ্টিয়া জেলা জুড়ে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর