বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
কুষ্টিয়ার মিরপুরে জিকে ক্যানেল থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার বেগম জিয়ার সুস্থ্যতা ও রোগমুক্তি কামনা করে কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির দোয়া দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা ও দীর্ঘায়ূ কামনায় কুমারখালী থানা-পৌর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন সমূহের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল খান খালিদ হোসেনের মৃত্যুতে মেহেদী রুমীর শোক পবিত্র মাহে রমজানের চাঁদ দেখা গেছে, কাল থেকে রোজা কুমারখালীতে প্রতিবন্ধী যুবতীকে গণধর্ষণ , গ্রেফতার ২ করোনা আক্রান্ত লালনশিল্পী ফরিদা পারভীন হাসপাতালে করোনায় সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদের মৃত্যু মতিঝিল ও ওয়ারীর সব থানায় ‘এলএমজি চৌকি’ সব রেকর্ড ভেঙে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৮৩

বেরোবিতে সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়লেও শনাক্ত হয়নি মোটরসাইকেল চোর

কেএম হিমেল আহমেদ,বেরোবি / ১৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১:৪৯ অপরাহ্ন

রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) প্রশাসনিক ভবনের নিচ থেকে একটি (ডিসকভার-১২৫ সিসি) মটর সাইকেল চুরির ঘটনার পনেরো দিন পার হলেও আজও চোরকে সনাক্ত করতে পারেনি প্রশাসন। চুরির ঘটনার দিনেই রংপুরের তাজহাট থানায় একটি চুরি মামলা দায়ের করেন মোটর সাইকেলটির মালিক হাফিজ আল আসাদ। মামলা নং ২৭ ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ জানুয়ারি বিকাল ৩ টায় মোটরসাইকেলটি চুরি হয়। দুপুর ২:৪০ মিনিটে প্রশাসনিক ভবনের দক্ষিণ গেটের সামনে মটর সাইকেলটি রেখে প্রশাসনিক ভবনে প্রবেশ করেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অফিস কর্মকর্তা হাফিজ আল আসাদ রুবেল। কিছুক্ষণ পর বের হয়ে দেখেন মটর সাইকেলটি আগের জায়গায় নেই। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিসিটিভি ফুটেজে কালো হেলমেট ও কালোকোর্ট পরিহিত একজনকে মটর সাইকেলটি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান গেট দিয়ে বের হয়ে যেতে দেখা যায়। মোটরসাইকেল মালিক হাফিজ আল আসাদ রুবেল বলেন, প্রায় পনেরো দিন পার হয়ে গেলেও চোর এর ছবি ভিডিওফুটেজ থাকা স্বত্বেও মামলার কোন অগ্রগতি নেই। আমি প্রক্টর অফিস এর কর্মকর্তা হয়েও আমার গাড়ির কোন নিরাপত্তা নেই। এতে আমি অনেক টা হতাশাবোধ করছি। গাড়িটি উদ্ধার করতেও প্রশাসনের তেমন কোনো জরুরি উদ্যোগ দেখছিনা। এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইজার আলী বলেন, গাড়িটি হারানোর পর মামলা হয়েছে। চোরকে সনাক্ত করার জন্য আমাদের সায়েন্টিফিক এবং ওয়ার্লেস ভিত্তিক কার্যক্রম চলছে। সিসি ক্যামেরায় চোরকে দেখা গেলেও এখনো কেন ধরা পড়ছেনা এ বিষয়ে এই কর্মকর্তা বলেন, ক্যামেরায় দেখা গেলেও লোকটা পরিচিত না। আমরা বের করার চেষ্টা করছি। বের করতে পারলেই আমাদের মূল একশনে যেতে পারবো। আশা করি খুব দ্রুতই তা সম্ভব হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তা জনিত অবস্থা এবং কি কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এ বিষয়ে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আতিউর রহমানকে বারবার ফোন দেওয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। উল্লেখ্য, ইতোপূর্বেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হল থেকে এক ছাত্রলীগ নেতার মোটসাইকেল চুরি হয় যার সন্ধান আজও মেলেনি।
জি/হিমেল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর