শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
কুষ্টিয়ায় করোনায় দুই জনের মৃত্যু শনাক্ত ২৯ অতি লোভে সর্বনাশ নিষিদ্ধ থ্রি-হুইলার দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ২২ মহাসড়ক বেড়েই চলেছে নিত্যপণ্যের দাম, দিশেহারা সাধারণ মানুষ খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ ৩ দফা দাবিতে ধাপে ধাপে আন্দোলনের ঘোষনা দেবে বিএনপি ছাত্ররাজনীতিকে জ্ঞান এবং মূল্যবোধের মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে : সেতুমন্ত্রী ‘ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা আইন’ বিরুদ্ধ মত নিয়ন্ত্রণের হাতিয়ার হতে পারে : টিআইবি কুষ্টিয়া দৌলতপুরের সেই ‘ভন্ড শামীম অবশেষে গ্রেপ্তার চলন্ত ট্রেন এ পুত্র সন্তানের জন্ম দিলেন এক প্রসূতি জাতীয় পার্টির মহাসচিব জাফর উল­াহ খান চৌধুরী লাহরীর শয্যা পাশে (কাজী জাফর) কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ

কুষ্টিয়া রাজবাড়ী মহাসড়কে ঝরছে প্রাণ : কালুর মোড় এখন যেন মৃত্যু ফাঁদ!

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৫২১ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২০ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ায় মহাসড়ক গুলো মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। প্রতিনিয়ত ঝরছে প্রাণ। কুষ্টিয়া রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের আলাউদ্দিন নগরের নিকট কালুর মোড় এখন যেন মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে জেলা পরিষদ ও সড়ক জনপথের জায়গায় দোকান ঘর নির্মান দূর্ঘটনার অন্যতম কারণ বলে জানা গেছে। কুষ্টিয়া রাজবাড়ী মহাসড়কের সৈয়দ মাছ উদ রুমী সেতু পার হয়ে কিছু দুর যেয়ে রাস্তার উত্তর দিকে কালুর মোড় অবস্থিত। কুমারখালি উপজেলার কয়া ইউনিয়ন এবং নন্দলালপুর ইউনিয়নের মনোহরপুর, সদরপুর, শিলাইদহ ইউনিয়নের জাহিদপুরের মানুষ এই একটি মাত্র সড়ক দিয়ে কালুর মোড় হয়ে কুমারখালি উপজেলা সদর ও কুষ্টিয়ায় যাতায়াত করে।

সম্প্রতি মহাসড়কটিতে উন্নয়ন মূলক কাজ হওয়ায় যানবাহনের ব্যস্ততা বেড়ে গেছে। ফলে প্রতিনিয়ত ঐ স্থানে ঘটছে দূর্ঘটনা। অনুসন্ধানে জানা গেছে ২০১৯ সালের ১৪ আগষ্ট কুমারখালী মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের অফিস সহকারী আব্দুল বারী অফিস শেষে মোটর সাইকেল যোগে নিজ বাড়ি কয়া ইউনিয়নে ফেরার পথে কালুর মোড়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। ২০২০ সালে কালুর মোড়ের নিকট সাইকেল আরোহী জালাল উদ্দীন নিজ বাড়ি কয়া ইউনিয়নে যাবার পথে ট্রাকের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যায়। চলতি বছরের ২ জানুয়ারি সন্ধ্যায় একই জায়গায় পিকআপ ভ্যান, নসিমন ও মোটর সাইকেলের ত্রিমূখী সংঘর্ষে মোটর সাইকেল আরোহী নিজাম উদ্দিন (৫৫) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।নিহত কাঠ মিস্ত্রি নিজাম কাজ শেষে বাড়ি ফিরছিল। মোড়টি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠার মূল কারন অনুসন্ধানে দেখা যায়, হাতি সাকো থেকে কালুর মোড় পর্যন্ত রাস্তাটি পূর্ব দিকে বেঁকে হাইওয়েতে সংযুক্ত হয়েছে। রাস্তাটির দণি পাশে এক চিলতে জায়গা জেলা পরিষদের। জায়গাটি লীজ নিয়ে এবং হাইওয়ের জায়গা অবৈধ ভাবে দখল করে মোড় পর্যন্ত মার্কেট গড়ে তোলা হয়েছে। ফলে হাইওয়ে থেকে উত্তরে অবস্থিত হাতি সাকো পর্যন্ত দেখা যায় না। আবার হাতি সাকো সড়ক থেকে দেিণর মহা সড়কের যানবাহন দেখা যায় না। ফলে ঘটছে দূর্ঘটনা। এ েেত্র পরিকল্পিত ভাবে মোড়টি সম্প্রসারণ, মার্কেট অপসারণ অথবা হাতি সাকো হতে রাস্তাটি সোজা ভাবে এসে মহাসড়কে সংযুক্ত হলে দূর্ঘটনার ঝুঁকি কমবে বলে সচেতন মহল মনে করছে। কুষ্টিয়ার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ তানিমুল হক বলেন, বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। নোটিশ করা হয়েছে। করোনাসহ বিভিন্ন জটিলতায় উচ্ছেদ অভিযান দেরী হচ্ছে।
জেলা পরিষদের সার্ভেয়ার মনিরুজ্জামান মনির কুমারখালীর কালুর মোড়ের জায়গা লিজ সংক্রান্ত বিষয়ে কোন তথ্য দিতে পারেন নাই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর