মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
ভিসির পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল শাবি : বাসভবন ঘেরাও নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে মার্কিন দূত-মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নির্যাতনের জবাবদিহিতায় যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশ্রুতিবদ্ধ কুষ্টিয়ায় নিখোজ যুবকের ভাসমান মরদেহ উদ্ধার কুষ্টিয়ায় ৯ পুলিশ কর্মকর্তার রদবদল সন্ত্রাসবাদকে না বলুন এই স্লোগানে কুষ্টিয়ায় উগ্রবাদ প্রতিরোধে পুলিশের মতবিনিময় সভা অক্সফামের রিপোর্ট : করোনায় শীর্ষ ১০ ধনীর সম্পদ দ্বিগুণ হয়েছে, মরছে গরিব, বাড়ছে বৈষম্য কুষ্টিয়ার মিরপুরে অবাধে ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রি সরকারি চিনিকলে বিক্রির তিনগুণ লোকসান কুষ্টিয়ায় গত চার মাস পর করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু চলতি অধিবেশনেই পাস হচ্ছে নির্বাচন কমিশন আইন

কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি কার্যালয়ে দফায় দফায় ছাত্রলীগ যুবলীগের হামলা-ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক : / ২৬৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৪২ অপরাহ্ন

পত্রিকা অফিসে হামলা, সাংবাদিক আহত-৩, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর

কুষ্টিয়াতে এন এস রোডে অবস্থিত কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির অফিসে দফায় দফায় হামলা করেছে সরকার দলীয় নেতা-কর্মীরা। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে কে বা কারা ৫ রাস্তার মোড়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভাস্কর্য’র কিছু অংশ ভেঙ্গে ফেলে। আর এর প্রতিবাদে শনিবার বিকেল ৫টার দিকে শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে সরকারদলীয় নেতা-কর্মীরা। মিছিল বের করেই কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির অফিসের ভেতরে ঢুকে চেয়ার, টেবিল, আলমারিসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করে কয়েকশ’ নেতা-কর্মীরা। অফিসে ভাংচুর শেষে ওই মার্কেটের বেশ কিছু দোকানে ভাংচুর করে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এ সময় সকল দোকান বন্ধ রাখার হুঁশিয়ারি দিয়ে যায় তারা।

এই সংবাদ সংগ্রহের সময় দীপ্ত টিভির কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি দেবেশ চন্দ্র সরকার, দীপ্ত ভিভির ক্যামেরাম্যান, একাত্তর ভিটির সহকারী ক্যামেরাম্যান হারুনের ওপর আক্রমণ করে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। বর্তমানে আহত তিন সাংবাদিক হাসপাতালে ভর্তি আছে। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা বেশ আশংকাজনক বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে দিপ্ত ভিভির জেলা প্রতিনিধি দেবেশ চন্দ্র সরকার জানান, আমরা জেলা বিএনপির অফিস ভাংচুরের সময় সংবাদ সংগ্রহ করি ভিডিও ফুটেজসহ। আর এতেই ক্ষিপ্ত হলে আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে এরা। তার কিছু সময় পরই ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কমীরা এসে হামলা করে কুষ্টিয়ার মজমপুরে অবস্থিত জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিনের ভাই সিহাব উদ্দিনের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান এসবি বাস কাউন্টরে। কয়েকশ’ ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কমীরা মূহর্তের মধ্যেই বাস কাউন্টার ও অফিস কক্ষ ভেঙ্গে লন্ডভন্ড করে দেয়। আতঙ্কিত হয়ে পড়ে বাসের যাত্রী ও কাউন্টারে থাকে সাধারণ জনগণ।

এর পরপরই রাত ৮টার সময় আবারো হামলা চালায় জেলা বিএনপির অফিসে। সে সময়ও তারা সেখানকার জিনিষ্টপত্র ভাংচুর করে। ভেঙ্গে ফেলা হয় বিএনপি অফিসের গেট ও সিসি ক্যামেরা। আর সে সময় সারা শহর যেনো এক আতঙ্কিত রূপ নেয়। বিএনপি অফিস ২য় দফায় ভাংচুরের পর পাশেই হামলা চালায় দৈনিক হাওয়া পত্রিকার বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ে। সে সময় ছাত্রলীগ কমীরা প্রায় ২০ মিনিট অবস্থান করে অফিসের সিসি ক্যামেরাসহ অফিস ভাংচর করে এবং গেট বন্ধ করে অফিসে থাকা সাংবাদিকদের পেট্রল ধরিয়ে পুড়িয়ে দিতে লাগে। স্থানীয়রা বলছে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাদ আহমেদ ও কুষ্টিয়া সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের এক নেতার নেতৃত্বে এমন তান্ডব চালিয়েছে কুষ্টিয়া জেলা জুড়ে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর