বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১০:১৩ অপরাহ্ন

সংসদের বিশেষ অধিবেশনে পাস হবে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন

অনলাইন ডেস্ক / ৭৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১০:১৩ অপরাহ্ন

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আজ রোববার (৮ অক্টোবর) শুরু হবে।  একাদশ জাতীয় সংসদের ১০ম অধিবেশন (২০২০ সালের ৫ম এবং মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ অধিবেশন) আজকের এই অধিবেশনকে সামনে রেখে সামনে রেখে ইতোমধ্যে প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। বিশেষ এ অধিবেশনে পাস হবে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) বিল-২০২০। এছাড়াও এ অধিবেশনে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিল পাস হবে। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

 

এই সূত্র জানায়, গত ২৫ অক্টোবর মুজিববর্ষ-২০২০ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির দেওয়া ভাষণের খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। মুজিববর্ষের এ বিশেষ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর নিয়মিত সাধারণ অধিবেশন চলবে। মুজিববর্ষের বিশেষ অধিবেশন চলবে ৮ থেকে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত। ১৩ থেকে ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত সাধারণ অধিবেশন চলতে পারে, যা আগামী ৮ নভেম্বর চূড়ান্ত হবে। সংসদের প্রথম দিন আজ  রোববার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হবে। এরপর শোক প্রস্তাব ও অধ্যাদেশ উত্থাপন করা হবে। আর  অগামীকাল সোমবার (৯ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক জীবন ও তার অবদান নিয়ে রাষ্ট্রপতি বক্তৃতার পর এ বিষয়ে আলোচনা হবে। আওয়ামী লীগ ও বিরোধী দলগুলোর সংসদ সদস্যরা আলোচনায় অংশ নেবেন। মুজিববর্ষ উপলক্ষে দেওয়া রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনার পর তা পাস হবে।

এদিকে বিশেষ অধিবেশনকে সামনে রেখে সংসদ ভবন এলাকাজুড়ে  আলোকসজ্জাসহ উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে। সব আয়োজনের প্রস্তুতিই করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে করা হচ্ছে। ইতোমধ্য অধিবেশনে যোগ দেওয়ার জন্য শুক্রবার (৬ নভেম্বর) সংসদ সদস‌্যদের করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরীক্ষা হয়েছে। যাদের করোনা নেগেটিভ আসবে তারা অধিবেশনে যোগ দেবেন রোস্টার অনুযায়ী। সর্বোচ্চ ৮০ জন সংসদ সদস্য উপস্থিত হবেন রোস্টার অনুযায়ী। শুধুমাত্র ৯ নভেম্বর রাষ্ট্রপতির ভাষণের  করোনা নেগেটিভ সব সংসদ সদস্য অধিবেশনে যোগ দেবেন। রাষ্ট্রপতির ভাষণে শুধুমাত্র সাংবাদিকরা সংসদ ভবনে যেতে পারবেন। এ জন্য সংসদ বিটের সাংবাদিকদের (৬ নভেম্বর) সংসদ সচিবালয় থেকে করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে। যাদের নেগেটিভ আসবে তারাই প্রবেশের অনুমতি পাবেন। পাশাপাশি সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও কোভিড-১৯ পরীক্ষা হয়েছে। যাদের নেগিটিভ আসবে তারা প্রবেশের অনুমতি পাবেন।

মুজিবর্ষের বিশেষ অধিবেশনকে সামনে রেখে স্পিকারের আসনের পেছনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টানানো হয়েছে। সংসদ ভবনের লেকে বাসানো হয়েছে দুটি নৌকা। পাল তোলা নৌকা দুুুটি তৈরি করেছে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন। জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর ই আলম চৌধুরী বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুজিব বর্ষের বিশেষ অধিবেশনের কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। মহামান্য রাষ্ট্রপতি ভাষণ দেবেন। বিশেষ অধিবেশনে সরকারি দলের পাশাপাশি বিরোধী দলের সদস্যদের আলোচনায় অংশগ্রহণের সুযোগ থাকবে। ৯ নভেম্বর প্রধান বিচারপতি, তিন বাহিনীর প্রধান, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, বিদেশি কূটনীতিক, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে আমন্ত্রণ সীমিত করা হয়েছে।

সাবেক মন্ত্রী ও  আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, একাধারে বাঙালি এবং বিশ্বের বন্ধু ছিলেন বঙ্গবন্ধু। বঙ্গবন্ধুর মতো বিচক্ষণ নেতা শুধু দেশে নয়, বিশ্বে বিরল। বঙ্গবন্ধু বিশ্ববাসীর কাছে স্বাধীনচেতা নেতা হিসেবে আজীবন বেঁচে থাকবেন। আসন্ন সংসদ অধিবেশনে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে তার বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন তুলে ধরবেন এমপিরা।  স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, মুজিববর্ষ স্মরণীয় করে রাখতে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশনের আয়োজন করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর সমগ্র জীবন আলোচনায় উঠে আসবে এ অধিবেশনে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে অধিবেশনের কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

জি/হিমেল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর