মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৯:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
কুমারখালী উপজেলা ও পৌর বিএনপির প্রতীকী অনশন পালন কুষ্টিয়ায় পণ্যে পাটজাতদ্রব্য ব্যবহার না করার অপরাধে জরিমানা কিশোরগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ২৫টি পরিবারের ৮৩টি বসতঘর পুড়ে ভস্মীভ’ত কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় বিএনপির প্রতিকী অনশন পালিত কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বিজ্ঞান শিক্ষার প্রসার ঘটিয়ে জনগনকে জনসম্পদে পরিনত করতে হবে : ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ, এমপি ফতুল্লায় গার্মেন্টস শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ পুলিশের লাঠিচার্জ, টিয়ারশেল নিক্ষেপ রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থাকায় তালিকা হচ্ছে না নিয়ন্ত্রণহীন অপরাধীরা সাংবাদিকদের মধ্যে আর কোনো বিভক্তি থাকবে না : রুহুল আমিন গাজী কুষ্টিয়ায় তিন দিনেও খোঁজ মেলেনি অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রের, ফোনে মুক্তিপণ দাবি

শতভাগ বিদ্যুৎ সুবর্ণজয়ন্তীর আগেই -প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক / ২১৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৯:১১ অপরাহ্ন

আমাদের ইচ্ছা ছিল মুজিববর্ষেই প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছাবো, ইতিমধ্যে ৯৭ ভাগ পৌঁছে দিয়েছি  বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী-২০২১’র মধ্যেই আমরা শতভাগ নিশ্চিত করব।

তিনি বলেন, কোন জায়গা যাতে অনাবাদি না থাকে সেদিকে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। যেভাবে করতে চান করেন, কিন্তু অনাবাদি জমি রাখা যাবে না। পাশাপাশি উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করতে হবে। তাই, আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ চলছে। যেখানে ১ লাখ ২১ হাজার ১৪২টি সমবায় সমিতি গঠন করা হয়েছে।’

আজ শনিবার (৭ নভেম্বর) ৪৯তম জাতীয় সমবায় দিবস-২০২০ উদযাপন এবং ‘জাতীয় সমবায় পুরস্কার-২০১৯’ প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালমাধ্যমে যুক্ত হয়েছিলেন তিনি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সময়বায়কে সবচেয়ে গুরুত্ব দিতেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশের দারিদ্র, নিপীড়িত ও শোষিত মানুষদের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য বঙ্গবন্ধু সংগ্রাম চালিয়ে গেছেন। যেহেতু আমাদের ভৌগলিক সীমারেখা কম, জনসংখ্যা বেশি, তাই মানুষের জীবনের নিরাপত্তা ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করাই ছিল বঙ্গবন্ধুর মূল লক্ষ্য। বাংলাদেশের উন্নয়ন যাতে ধনী, দরিদ্র, গ্রাম, শহর সবকিছু মিলিয়ে সুষম হতে পারে সে চিন্তা থেকে তিনি সমবায়কে গুরুত্ব দিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধু কৃষি যান্ত্রীকিকরণের কথা চিন্তা করেছিলেন জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশের মানুষকে সাহায্য করার জন্য বঙ্গবন্ধু দুগ্ধ খামার, যুব সমাজের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি, সমবায় সমিতি গঠন, ট্রাক, বাস ও থ্রি হুইলারসহ বিভিন্ন কৃষিযন্ত্র কৃষকদের হাতে তুলে দেন। একইসঙ্গে খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা পূরণের জন্য কৃষি, তাঁতীদের জন্য সমবায় এমনকি বিসিক শিল্প নগরী ও কুঠির শিল্প গড়ে তোলেন।

শীতে করোনার প্রকোপ বাড়ে জানিয়ে সেখান থেকে নিজেদের সুরক্ষিত রাখার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সামনে শীত আসছে। শীতে করোনার প্রকোপ কিছুটা বাড়ে, সেখান থেকে নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে হবে। আমরা যে স্বাস্থ্য নির্দেশনা দিয়েছি সেগুলো মেনে চলতে হবে। ইউরোপের অনেক দেশ কিন্তু লকডাউন ঘোষণা করেছে, আমরা এখনো করোনা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছি ।নারীদের সমবায়ে আরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, নারীরা এগিয়ে এলে দুর্নীতি অনেকটা কমে যাবে। পাশাপাশি তাদের পরিবারও অনেক লাভবান হবে।

জি/হিমেল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর